Placeholder canvas
কলকাতা শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |
K:T:V Clock

Ram Navami | NIA | রামনবমীর হিংসায় এনআইএ তদন্তের নির্দেশ হাইকোর্টের

Updated : 27 Apr, 2023 4:11 PM
AE: Hasibul Molla
VO: Soumi Ghosh
Edit: Monojit Malakar

কলকাতা: রামনবমীতে হাওড়া, হুগলি, ডালখোলায় অশান্তির ঘটনায় এনআইএ তদন্তের নির্দেশ দিল ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি টি এস শিবগণনমের ডিভিশন বেঞ্চ। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে এনআইএ-কে সমস্ত নথি হস্তান্তরের জন্য রাজ্য পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী রামনবমীর হিংসা নিয়ে এনআইএ তদন্তের দাবিতে মামলা করেছিলেন। বৃহস্পতিবার ওই হিংসা নিয়ে রাজ্যের তিন জেলার পুলিশের তরফে একটি রিপোর্ট পেশ করা হয় আদালতে।

রামনবমীর মিছিল ঘিরে হাওড়ার শিবপুর হুগলির রিষড়া এবং উত্তর দিনাজপুরের ডালখোলায় হিংসা ছড়ায়। যার জেরে ট্রেন ভাঙচুর থেকে শুরু করে পুলিশের গাড়িতে আগুন ধরানো, বিভিন্ন বাড়িতে ভাঙচুররের মতো নানা হিংসাত্মক ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১৪৪ ধারা জারি করা হয় হাওড়ায় এবং হুগলির বিভিন্ন এলাকায়। রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস দিল্লি থেকে ফিরে বিমানবন্দরে নেমেই সোজা রিষড়ায় চলে যান তিনি সেখানে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলেন। পুলিশ এবং প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকও করেন। রাজভবন সূত্রের খবর, রাজ্যপাল হাওড়ায়ও যাওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ করেছিলেন। এমনকী তার জন্য কনভয়ও প্রস্তুত ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তিনি আর হাওড়ায় যাননি। ওই হিংসায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও রাজ্যপাল লিখিত বিবৃতিতে জানিয়েছিলেন। 

এদিকে, অশান্তির দিনেই হাওড়ায় ছুটে গিয়েছিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এই ঘটনার নেপথ্যে রাষ্ট্রবিরোধী শক্তি কাজ করছে বলেই দাবি করেন তিনি। যদিও পুলিশ শুভেন্দুকে শিবপুরে ঢুকতে দেয়নি। হাওড়ায় দাঁড়িয়েই ঘটনার এনআইএ তদন্তের দাবি জানান শুভেন্দু। তার পরেই হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেন। বৃহস্পতিবার কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে শুনানি হয়।

উল্লেখ্য, এই ঘটনার নেপথ্যে বিজেপির হাত রয়েছে বলে দাবি করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সাংবাদিক বৈঠক করে হাওড়ায় রামনবমীতে অস্ত্র নিয়ে মিছিলের ছবি প্রকাশ করেছিলেন।