Placeholder canvas
কলকাতা সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪ |
K:T:V Clock

New 75 Rupee Coin | New Parliament | সংসদ ভবনের উদ্বোধনে ৭৫ টাকার কয়েন আনছে কেন্দ্র, কেমন হবে জানুন

Updated : 26 May, 2023 5:06 PM
AE: Hasibul Molla
VO: Soumi Ghosh
Edit: Silpika Chatterjee

নয়াদিল্লি: নয়া সংসদ ভবনের উদ্বোধনের জন্য বিশেষ ৭৫ টাকার কয়েন আনতে চলেছে কেন্দ্র। আগামী রবিবার নয়া সংসদ ভবনের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সূত্রের খবর, নয়া সংসদ ভবনের উদ্বোধনের মুহূর্তকে স্মরণীয় করে রাখতে এই বিশেষ কয়েন আনতে চলেছে কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, ৪৪ মিলিমিটার ব্যাসযুক্ত হবে এই ৭৫ টাকার বিশেষ মুদ্রা। তার একপাশে থাকবে অশোক স্তম্ভের চিহ্ন। নীচে লেখা থাকবে সত্যমেব জয়তে। অশোক স্তম্ভের বাঁ দিকে দেবনাগরী লিপিতে ভারত এবং ডান দিকে ইংরেজিতে ইন্ডিয়া লেখা থাকবে। ভারতীয় মুদ্রার প্রতীক রুপি চিহ্নও থাকবে এই নতুন মুদ্রায়।

মুদ্রার অন্য পিঠে থাকবে নতুন সংসদ ভবনের ছবি। সেই ছবির উপরে দেবনাগরীতে ‘সংসদ সঙ্কুল’ এবং নীচে ইংরেজিতে ‘পার্লামেন্ট কমপ্লেক্স’ লেখা থাকবে বলে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক জানিয়েছে।

জানা গিয়েছে, ৭৫ টাকার এই বিশেষ মুদ্রাটির ওজন ৩৫ গ্রাম। তৈরি করা হয়েছে ৫০ শতাংশ রুপো, ৪০ শতাংশ তামা, ৫ শতাংশ নিকেল এবং ৫ শতাংশ দস্তা দিয়ে। আগামী রবিবার নতুন সংসদ ভবনের উদ্বোধন এবং ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছরের জন্য এই বিশেষ মুদ্রা আনা হচ্ছে বলে সূত্রের খবর। 

জানা গিয়েছে, নতুন সংসদ ভবনের নির্মাণকাজে অংশ নেওয়া ৬০ হাজার কর্মীকে সংবর্ধনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘদিনের স্বপ্ন এই ভবন। এদিনই চোল রাজবংশের ঐতিহ্য ও পরম্পরার প্রতীক ‘সেঙ্গল’ বা আয়ূধ বা রাজদণ্ড স্থাপন করা হবে সংসদ ভবনে। যা জাতির স্বাধীনতার প্রতীকও বটে। ১৯৪৭ সালের ১৪ অগাস্ট পণ্ডিত জওহরলাল নেহরুর হাতে ব্রিটিশদের কাছ থেকে ক্ষমতা হস্তান্তরের সময় এটি ব্যবহার করা হয়েছিল। তামিল ভাষায় এর অর্থ সম্পদে পরিপূর্ণ। এখন যে সংসদ ভবনে সভা বসে, তার উদ্বোধন হয়েছিল ১৯২৭ সালের ২৭ জানুয়ারি। উদ্বোধন করেছিলেন ভারতের তৎকালীন বড়লাট লর্ড আরউইন।

এদিকে এত তোড়জোড়-জাঁকজমক সত্ত্বেও উদ্বোধনে ঘরের লোক ছাড়া বাইরের শিবিরের কেউ থাকবেন না বলে এক যৌথ বিবৃতিতে জানিয়ে দিয়েছে কংগ্রেস সহ ১৯টি বিরোধী দল। কংগ্রেসের নেতৃত্বে এই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুকে সম্পূর্ণ উপেক্ষা করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিজে উদ্বোধন করার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় সংবিধানের মূল সুর ও ধ্যানধারণা ভঙ্গ হয়েছে। সরকার গণতন্ত্রকে ভয় দেখাচ্ছে। কংগ্রেস ছাড়া যারা এই যৌথ বিবৃতিতে সই করেছে তারা হল, তৃণমূল কংগ্রেস, ডিএমকে, জনতা দল ইউনাইটেড, আম আদমি পার্টি, এনসিপি, শিবসেনা উদ্ধব গোষ্ঠী, সিপিএম, সিপিআই, আরএসপি, সমাজবাদী পার্টি, আরজেডি, মুসলিম লিগ, জেএমএম, ন্যাশনাল কনফারেন্স, কেরালা কংগ্রেস, এমডিএমকে, ভিসিকে এবং রাষ্ট্রীয় লোকদল।