Placeholder canvas
কলকাতা শনিবার, ২২ জুন ২০২৪ |
K:T:V Clock

যাদবপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় এফআইআর দায়ের শুভেন্দুর

Updated : 18 Aug, 2023 7:50 PM
AE: Hasibul Molla
VO: Priti Saha
Edit: Silpika Chatterjee

কলকাতা: বৃহস্পতিবার যাদবপুর কাণ্ডে যুবমোর্চার সভা ঘিরে তুলকাালাম পরিস্থিতি তৈরি হয়। বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীও সেখানে উপস্থিত হয়ে বাম এবং অতি বামেদের যাদবপুর থেকে উপড়ে ফেলার হুমকি দেন। সেই ঘটনায় তাঁকে  পূর্বপরিকল্পিত হামলা চালানো হয়েছে। এমনকী প্রাণে মারারও চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলে যাদবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেন শুভেন্দু। বিরোধী দলনেতার দাবি, হামলার ঘটনার নেপথ্যে যে সংগঠন রয়েছে, সেই রেভলিউশনারি স্টুডেন্ট ফেডারেশন অর্থাৎ আরএসএফ একটি নিষিদ্ধ মাওবাদী সংগঠন। শুভেন্দুর অভিযোগ, বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে সভামঞ্চ ছাড়ার সময় তাঁর উপর হামলা চালান কয়েক জন। তাঁর গাড়িতে পাথরও ছোড়া হয়েছে। তাঁকে শারীরিক হেনস্থা করা হয়েছে বলেও অভিযোগ তুলেছেন শুভেন্দু। 

প্রথম বর্ষের ছাত্রের মৃত্যুর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার  এবিভিপির এবং বিজেপির যুব মোর্চার অবস্থান বিক্ষোভে যোগ দেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। সেই সভা থেকে যাদবপুর নিয়ে বিধানসভা অচল করার হুমকি দেন বিরোধী দলনেতা।  সেই সময় তাকে কালো পতাকা দেখানোকে কেন্দ্র করে তুলকালাম ঘটে। আরএসএফ নামে একটি ছাত্র সংগঠনের সমর্থকদের সঙ্গে এবিভিপি সমর্থকদের  বচসা থেকে মারামারি শুরু হয়। রীতিমতো রক্তারক্তি কাণ্ড ঘটে। কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদেরও মারমুখী হতে দেখা যায়। তাঁরা  নকশালপন্থী ছাত্র সংগঠন আরওসএফের কর্মী সমর্থকদের মারধর করেন। আরএসএফের এক কর্মীকে রাস্তায় ফেলে মারধর করে মুখ ফাটিয়ে দেওয়ার  অভিযোগ উঠেছে। তাঁকেই পুলিশ ভ্যানে তুলে নিয়ে চলে যায়। এই ঘটনাকে ঘিরে দীর্ঘক্ষণ যাদবপুর থানা থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত এলাকায় যান চলাচল বন্ধ থাকে।

এদিকে, আইএসএফের অভিযোগ, বিজেপির লোকজন বিনা প্ররোচনায় হামলা চালিয়েছে। সংগঠনের এক নেতা বলেন, দাঙ্গাবাজ এবং সাম্প্রদায়িক শুভেন্দু অধিকারীর যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থান নেই। বিজেপি এবং তৃণমূল যাদবপুরে অশান্তির সৃষ্টির নোংরা খেলায় মেতেছে। আমরা এই দুই দলকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢুকতে দেব না।