Placeholder canvas
কলকাতা শনিবার, ১৮ মে ২০২৪ |
K:T:V Clock

Health Tips For Women | মহিলাদের যে সমস্ত পরীক্ষাগুলি করা উচিত

Updated : 15 May, 2023 2:23 PM
AE: Abhijit Roy
VO: Soumi Ghosh
Edit: Monojit Malakar

বিশেষজ্ঞদের মতে, ৪০ এর পর থেকেই শরীর বিভিন্ন রোগ বাসা বাঁধতে শুরু করে। এই বয়সের পর ডায়াবেটিস, রক্তচাপ বৃদ্ধি, থাইরয়েড, কোলেস্টেরল বৃদ্ধি, জরায়ুর নানা রোগ বাড়তে শুরু করে। তবে নিয়মিত মেডিকেল চেকআপ করালে সব ধরনের রোগ নির্ণয় করা যায় দ্রুত। কিছু গুরুত্বপূর্ণ মেডিকেল চেকআপ আছে, যেগুলো বয়স ৪০ পেরোলেই করা উচিত। 

রক্তচাপ পরীক্ষা: একজন সুস্থ ব্যক্তির স্বাভাবিক রক্তচাপের পরিসীমা ১৩০/৮০ এর নিচে। তবে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় অনেকেই ভোগেন। জীবনযাত্রার অনিয়মসহ নানা সমস্যার কারণে রক্তচাপ বাড়তে পারে।

দাঁতের পরীক্ষা: প্রতি ছয় মাসে অন্তত একবার দাঁতের পরিচ্ছন্নতা ও পরীক্ষা করানো উচিত। এছাড়া ব্রাশ ও ফ্লসিংয়ের বিষয়েও সচেতন হতে হবে।

ডায়াবেটিস পরীক্ষা: ডায়াবেটিস এখন প্রায় ঘরে ঘরেই। রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা পরিমাপ করার মাধ্যমে আপনার মা ডায়াবেটিসে ভুগছেন কি না তা জানা যাবে। যদি আপনার মায়ের ডায়াবেটিস ধরা পড়ে তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে ওষুধ খাওয়ান ও জীবনধারণে পরিবর্তন আনতে সহযোগিতা করুন তাকে।

ম্যামোগ্রাম: স্তন ক্যানসারের জন্য ম্যামোগ্রাম স্ক্রিনিং করা হয়। নারীদের ৪০ বছর বয়সে ম্যামোগ্রাম পরীক্ষা শুরু করা উচিত (এটি স্তনের এক্সরে)। এর মাধ্যমে প্রাথমিকভাবেই স্তন ক্যানসার শনাক্ত করা যায় ও সঠিক চিকিৎসায় রোগী সুস্থ হয়ে যেতে পারেন।

চোখের পরীক্ষা: আপনার মায়ের চোখ ভালো আছে কি না তা যাচাই করতে চোখ ও দাঁতের পরীক্ষা করাতে হবে নিয়মিত। বিশেষজ্ঞদের মতে, ৪০ বছর বয়সের পর থেকে অন্তত প্রতি দুই বছর পরপর চোখের পরীক্ষা করা উচিত।

কোলেস্টেরল পরীক্ষা: কোলেস্টেরল স্ক্রিনিংকে লিপিড প্যানেলও বলা হয়। এটি একটি রক্ত পরীক্ষা, যা রক্তে কোলেস্টেরল ও ট্রাইগ্লিসারাইডের পরিমাণ পরিমাপ করে। কোলেস্টেরল পরীক্ষার মাধ্যমে দেখা যাবে আপনার মা কার্ডিওভাসকুলার রোগের ঝুঁকিতে আছেন কি না।