কলকাতা শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪ |
K:T:V Clock

HS Result 2023 | এবার উচ্চ মাধ্যমিকে পাশের হার ৮৯.২৫ শতাংশ, মেধাতালিকার শীর্ষে নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন 

Updated : 24 May, 2023 5:27 PM
AE: Abhijit Roy
VO: Priti Saha
Edit: Monojit Malakar

কলকাতা: প্রকাশিত হল ২০২৩ সালের উচ্চ মাধ্যমিকের ফল। পরীক্ষার ৫৭ দিনের মাথায় সাংবাদিক বৈঠক করে ফলপ্রকাশ করলেন পশ্চিমবঙ্গ উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য। এবছরে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৮ লক্ষ ৫২ হাজার ৪৪৪ জন। তার মধ্যে পরীক্ষা দিয়েছিল ৮ লক্ষ ২৪ হাজার ৮৯১ জন। এবছরে পাশ করেছে মোট ৭ লক্ষ ৩৭ হাজার ৮০৭ জন। যা শতাংশের বিচারে ৮৯.২৫ শতাংশ। সাফল্যের নিরিখে মেয়েদের থেকে কিছুটা এগিয়ে ছেলেরা। ছেলেদের পাশের হার ৯১.৮৬ শতাংশ এবং মেয়েদের পাশের হার ৮৭.৪৬ শতাংশ। মোট পরীক্ষার্থীর ৯০ শতাংশ বা তার বেশি পাশ করার নিরিখে রয়েছে মোট ১১টি জেলা। যার মধ্যে সেরা পূর্ব মেদিনীপুর। এই জেলায় পাশের হার ৯৫.৭৫ শতাংশ। অন্যদিকে, পাশের হারের নিরিখে দশম স্থানে কলকাতা।

এবছরের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় ফার্স্ট ডিভিশন বা ৬০ শতাংশের বেশি পেয়েছে ২ লক্ষ ৭৩ হাজার ৫৮০ জন পরীক্ষার্থী। শতাংশের বিচারে যা ৩৮.৬৫ শতাংশ। অন্যদিকে, ৮০ শতাংশের বেশি পেয়েছে মোট পরীক্ষার্থীর ৬.৬৬ শতাংশ। সংসদ সভাপতি জানিয়েছেন, সেই সংখ্যাটা ৫২ হাজার ৮৭৮। এবছরেও উর্দু, নেপালি এবং সাঁওতালি ভাষায় দেওয়া পরীক্ষার্থীদেরও প্রথম স্থানাধিকারীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। 

এদিকে এবছরে মেধাতালিকার দৈর্ঘ্য কমেছে। গত বছর সেই তালিকায় জায়গা করে নিয়েছিল ২৭২ জন। কিন্তু এবার প্রথম দশে রয়েছে মোট ৮৭ জন। সেখানে অনেকটাই এগিয়ে হুগলি। ওই জেলার মোট ১৮ জন স্থান পেয়েছে মেধাতালিকায়। প্রথম হয়েছে নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যালয়ের ছাত্র শুভ্রাংশু সর্দার। তার প্রাপ্ত নম্বর ৪৯৬ (৯৯.২) শতাংশ। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে দু’জন। বাঁকুড়ার বঙ্গ বিদ্যালয়ের সুষমা পাল এবং উত্তর দিনাজপুরের আবু সানা। তাদের প্রাপ্ত নম্বর ৪৯৫। তৃতীয় স্থানে রয়েছে চারজন। তমলুকের চন্দ্রবিন্দু মাইতি, বালুরঘাটের অনুসূয়া সাহা, এবং শ্রেয়া মল্লিক, আলিপুরদুয়ারের পিয়ালি দাস। তাদের সকলেরই প্রাপ্ত নম্বর ৪৯৪। সংসদ সভাপতি জানিয়েছেন, এবছরের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা বিশেষ কারণে গুরুত্বপূর্ণ ছিল। যারা এবার উচ্চ মাধ্যমিক দিয়েছিল তারা ২০২১ সালে করোনার জন্য মাধ্যমিক দিতে পারেনি। তাই এটাই তাদের জীবনে প্রথম বড় পরীক্ষা ছিল।