Placeholder canvas
কলকাতা শনিবার, ২২ জুন ২০২৪ |
K:T:V Clock

Opposition Conclave | মমতার প্রস্তাব মেনেই মে মাসের তৃতীয় সপ্তাহে পাটনায় বিরোধীদের মহাসম্মেলন

Updated : 5 May, 2023 5:59 PM
AE: Hasibul Molla
VO: Soumi Ghosh
Edit: Monojit Malakar

পাটনা: তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) প্রস্তাবমতোই এ মাসের তৃতীয় সপ্তাহে পাটনায় বিজেপি বিরোধী মহাসম্মেলন হতে চলেছে। সূত্রের খবর, ১৭ কিংবা ১৮ মে হবে ওই বিরোধী সম্মেলন। প্রবীণ এনসিপি (NCP) নেতা শরদ পাওয়ার (Sharad Pawar), শিবসেনা (Shiv Sena) (উদ্ধব গোষ্ঠী) প্রধান উদ্ধব ঠাকরেও (Uddhav Thackeray) যোগ দিতে পারেন এই সম্মেলনে। 

পাটনা বিধান পরিষদের চেয়ারম্যান দেবেশ চন্দ্র ঠাকুর বৃহস্পতিবার মুম্বই গিয়েছিলেন। তিনি পাওয়ার এবং উদ্ধবের সঙ্গে দেখা করেন। দুজনেই পাটনা সম্মেলনে হাজির থাকবেন বলে জেডিইউ নেতা দেবেশকে কথা দিয়েছেন। এখন পর্যন্ত যা খবর মিলছে, তাতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বম্দ্যোপাধ্যায়, বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার (Nitish Kumar) ছাড়াও সম্মেলনে যোগ দেওয়ার কথা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল (Arvind Kejriwal) কিংবা তাঁর কোনও প্রতিনিধি, সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদব, সিপিএমের (CPM) সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি, সিপিআই নেতা ডি রাজা প্রমুখের। 

গত মাসে নীতীশ কুমার এবং বিহারের উপ-মুখ্যমন্ত্রী তেজস্বী যাদব (Tejaswi Yadav) নবান্নে বৈঠক করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে। তিনিই নীতীশদের প্রস্তাব দেন, বিহার থেকেই শুরু হোক বিরোধী জেটের সলতে পাকানোর কাজ। কারণ সর্বোদয় নেতা জয়প্রকাশ নারায়ণের কংগ্রেস বিরোধী আন্দোলনের সূচনা হয়েছিল বিহার থেকেই। তৃণমূলনেত্রীর প্রস্তাব মেনে নেন নীতীশরা। যেদিন মমতার সঙ্গে দেখা করেন, সেদিনই সন্ধ্যায় নীতীশ-তেজস্বী লখনউতে দেখা করেন সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদবের সঙ্গে। 

বিহারে বিজেপির সঙ্গে জেডিইউয়ের জোট ভাঙার পর নতুন সরকার গড়ার পরই নীতীশ কুমার দিল্লিতে গিয়ে কথা বলেন কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে। কংগ্রেস নেত্রীকে তিনি বিরোধী জোটের নেতৃত্ব কংগ্রেসের হাতে রাখার কথা বলেন। তখনই নীতীশ কুমার সিপিএম নেতা সীতারাম ইয়েচুরির সঙ্গেও কথা বলেন। তারপর জাতীয় রাজনীতিতে অনেক জল গড়িয়েছে। তৃণমূলের মতো একাধিক আঞ্চলিক দল বিরোধী জোটের নেতৃত্ব কংগ্রেসের হাতে থাকার বিরোধিতা করে। তৃণমূল তো পরিষ্কার জানায়, কংগ্রেসের দাদাগিরি তারা মানবে না। ত্রিপুরা, গোয়া, মেঘালয়ের ভোটের সময় কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী প্রচারে গিয়ে অভিযোগ করেন, এই সব রাজ্যে বিজেপিকে সুবিধা করে দেওয়ার জন্যই তৃণমূল প্রার্থী দিয়েছে। ভোটের পর মমতা জানান, লোকসভা ভোটে তৃণমূল একাই লড়বে।

এই পরিস্থিতিতে হাল ধরেন নীতীশ কুমার। তিনি রাজ্যে রাজ্যে ঘুরে বিরোধী জোটের সলতে পাকানোর কাজে হাত দেন। কলকাতায় মমতার সঙ্গে দেখা করেন অখিলেশ, জেডিএস নেতা এইচ ডি কুমারস্বামী। মমতা ভুবনেশ্বরে গিয়ে কথা বলেন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েকের সঙ্গে। 

এবার পাটনার বিজেপি বিরোধী মহাসম্মেলনের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। সব ঠিক থাকলে এ মাসের তৃতীয় সপ্তাহে পাটনায় বসবে বিরোধী কনক্লেভ। তবে যাঁরা কথা দিয়েছেন আসবেন বলে, তাঁদের মধ্যে শেষ পর্যন্ত কত জন আসবেন, তা নিয়ে কৌতূহল রয়েছে রাজনৈতিক মহলের। 

বিজেপি (BJP) অবশ্য এই বিরোধী কনক্লেভকে গুরুত্বই দিতে নারাজ। দলের সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) বলেন, বিরোধী কনক্লেভ কত দেখলাম। গত লোকসভা ভোটের আগে তো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শহীদ মিনার ময়দানে বিরোধীদের সম্মেলন করেছিলেন। তার ফল কী হয়েছিল, সবাই জানে।