Placeholder canvas
কলকাতা শনিবার, ২২ জুন ২০২৪ |
K:T:V Clock

Opposition Unity | জোটের রুটম্যাপ ঠিক করতে পাটনায় বিরোধীদের বৈঠক ২৩ জুন

Updated : 8 Jun, 2023 5:04 PM
AE: Hasibul Molla
VO: Soumi Ghosh
Edit: Silpika Chatterjee

নয়াদিল্লি: বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের ডাকা বিরোধী বৈঠক আগামী ২৩ জুন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। বিহারের উপ-মুখ্যমন্ত্রী তেজস্বী যাদব (Bihar deputy chief minister Tejashwi Yadav) এবং জেডিইউ জাতীয় সভাপতি লালন সিং সাংবাদিক বৈঠকে তারিখ ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi), মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee), অরবিন্দ কেজরীওয়াল (Arvind Kejriwal) এবং এমকে স্ট্যালিন বৈঠকে যোগদান করতে সম্মত হয়েছেন। ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনের বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য একটি যৌথ কৌশল তৈরি করতে সমস্ত বিরোধী দল একসঙ্গে পাটনায় বসবে।

১২ জুন পটনায় বিরোধী শিবিরের বৈঠকের আয়োজনের কথা জানিয়েছিলেন নীতীশ কুমার (Nitish Kumar)। কিন্তু পরে তা পিছিয়ে দেওয়া হয়। জেডিইউ সূত্রের খবর,  মূলত কংগ্রেসের অনুরোধেই এই বৈঠক পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কংগ্রেস সভাপতি মল্লিকার্জুন খড়্গে বা রাহুল গান্ধী কেউই ১২ জুন বৈঠক হলে হাজির থাকতে পারবেন না। দু’জনেই ওই দিন অন্য কর্মসূচিতে ব্যস্ত থাকবেন। তা ছাড়া ডিএমকে প্রধান তথা তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিনও ওই দিন তাঁর রাজ্যে একটি বাঁধ উদ্বোধনের অনুষ্ঠান রয়েছে বলে বৈঠক পিছিয়ে দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছিলেন। এনডিএর জোটের হাত ছেড়ে গত বছর কংগ্রেস, আরজেডি সহ ৯টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জোট বেঁধে বিহারে নতুন সরকার গঠন করেন জেডি(ইউ) নেতা নীতীশ কুমার (Nitish Kumar)। তার পর থেকেই বিজেপি বিরোধী দলগুলির সঙ্গে সখতা বেড়েছে নীতীশের।

কয়েক দশক ধরে রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বী বামফ্রন্টের নেতাদের সঙ্গেও মঞ্চ ভাগ করবেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এছাড়াও উপস্থিত থাকবেন তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী ও ডিএমকে প্রধান এম কে স্টালিন, তার ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন, শিবসেনা ইউবিটি প্রধান উদ্ধব ঠাকরে এবং শরদ পাওয়ার, জনতা দল ইউনাইটেডের জাতীয় সভাপতি রাজীব রঞ্জন বুধবার পাটনায় সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। জোট নিয়ে কংগ্রেসের কেসি ভেনুগোপাল দিল্লিতে বলেন, আমরা বিশ্বাস করি যে গণতন্ত্র রক্ষার লক্ষ্যে আমাদের ঐক্য এবং প্রতিশ্রুতি সময়ের প্রয়োজন এবং আমরা আজ ক্ষমতায় বিভক্ত শক্তিকে পরাজিত করতে সফল হব।

২০২৪ লোকসভা ভোটের আগে জোটের সলতে পাকানোর কাজ ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছেন জেডিঅউ নেতা। বিজেপি বিরোধী দলগুলিকে একজোট করতে কংগ্রেস-সহ বিভিন্ন বিরোধী দলের পাশাপাশি তৃণমূলের সঙ্গেও আলোচনা করেছেন তিনি। দিল্লিতে গিয়ে মল্লিকার্জুন খাড়্গে, রাহুল গান্ধী, সনিয়া গান্ধীর সঙ্গে জোটকে নেতৃত্ব দেওয়া নিয়ে আলোচনা করেছেন। কেন্দ্রের অ্যর্ডিন্যান্স বিরোধীতা করে কেজরিওয়ালের পাশে থাকার বার্তার দেওয়ার সঙ্গে বিরোধী জোট নিয়েও আলোচনা করেন। কলকাতায় নীতীশ ও তেজস্বী যাদব মমতার সঙ্গে বৈঠক করেছে। তৃণমূল সুপ্রিমো জানিয়েছে যে যে রাজ্য আঞ্চলিক দলগুলি শক্তিশালি সেখানে তাকে সার্পোট করতে হবে। যাতে ভোট ভাগ হয়ে না যায়। নীতীশ কুমার নয় মমতার সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল, পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ভগবন্ত মানও। বিরোধীরা অভিযোগ করেছে মোদি সরকার দেশ জুড়ে বিরোধীদের কন্ঠরোধে স্বৈরতন্ত্র শাসন চালাছে। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা দিয়ে বিরোধীনেতা মন্ত্রীদের বারবার হেনস্তা করছে। লোকসভা নির্বাচনের আগে দিল্লির মসনদ থেকে মোদি সরকারকে উৎখাত করতে বিরোধীরা এক ছাতার তলায় হওয়ার চেষ্টা করছে। বিরোধীদের ভোটের বিভাজন ঠেকাতে একটি আসনে বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে শুধুমাত্র একজন বিরোধী নেতাকে মাঠে নামানো গুরুত্বপূর্ণ নয়। বিজেপির হিটলারি শাসন ও ধর্মের মেরুকরণের রাজনীতি রুখতে বিরোধী জোট। আগামিদিনের রুটম্যাপ ঠিক করতে পাটনায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বিরোধীদের জোট।