Placeholder canvas
কলকাতা বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |
K:T:V Clock

Kisi Ka Bhai Kisi Ki Jaan | Kolkata Tv Rating | সলমনের নতুন ছবি কেমন হল? রিভিউ নিয়ে কলকাতা টিভির রেটিং কত জেনে নিন

Updated : 24 Apr, 2023 7:20 PM
AE: Hasibul Molla
VO: Soumi Ghosh
Edit: Monojit Malakar

কলকাতা: প্রত্যেক বারই ইদে (Eid) ধামাকাদার কিছু নিয়ে হাজির হন ‘ভাইজান’। এবারও তার অন্যথা হল না। দীর্ঘ চার বছর পর ইদে সলমন খান (Salman Khan) হাজির হলেন তাঁর ‘কিসি কা ভাই কিসি কি জান’ (Kisi Ka Bhai Kisi Ki Jaan) নিয়ে। বহুদিন ধরেই সলমনের ছবির জন্য অপেক্ষা করেছিলেন তাঁর অনুরাগীরা, এবারও ছিলেন। অবশেষে বক্স অফিসে (Box Office) নিজস্ব মেজাজে হাজির হলেন ‘সল্লু ভাই’। তা কেমন হল ‘কিসি কা ভাই কিসি কি জান’? কতটা আশা পূরণ করতে পারলেন ভাইজান ?

রোম্যান্স, অ্যাকশন, দুষ্টের দমন আর দেশপ্রেম- তাঁকে যেভাবে দেখতে অভ্যস্ত দর্শকরা, সেভাবেই ছবিতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ভাইজানের (Bhaijaan) অভিনয় (Acting)। গল্পে ভাইজান অর্থাৎ সলমান খান বিয়ে না করার সিদ্ধান্ত নেন কারণ, তিনি চান না কোনও মেয়ে তাঁকে তাঁর প্রিয় ভাইদের থেকে আলাদা করুক। তাঁর ভাইরা হলেন মোহ (জ্যাসি গিল), লাভ (সিদ্ধার্থ নিগম) এবং ইশক (রাঘব জুয়াল)। তারই মাঝে ভাগ্যলক্ষ্মী গুন্ডামানেনি (পূজা হেগড়ে)র এন্ট্রি হয়, যিনি আদপে হায়দরাবাদের বাসিন্দা। ভাইজানের বাড়িতে ভাড়াটে হয়ে হাজির হন তিনি। ভাগ্যলক্ষ্মীই বিয়ের প্রতি ভাইজানের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করেন। এদিকে গুন্ডারা ভাগ্যলক্ষ্মীর পিছু নেয় তাঁদের আক্রমণ করে। শেষপর্যন্ত ‘ভাইজান’ ও ভাগ্যলক্ষ্মীর গল্প কোন দিকে মোড় নেবে? সে সব উত্তর আছে ‘কিসি কা ভাই, কিসি কি জান’ ছবিতে। তবে এই ছবির গল্প তামিল সুপারস্টার অজিত কুমারের ২০১৪ মুক্তি পাওয়া ছবি ‘ভীরাম’-এর রিমেক। ‘ভীরাম’ চিত্রনাট্য সল্লুর এতটাই পছন্দ ছিল যে তিনি ‘কভি ইদ কভি দিওয়ালি’ বানানোর কথা ঘোষণা করে দেন। পরে সেটাই নাম বদলে হয় ‘কিসি কা ভাই কিসি কি জান’।

ভাইজানের এই ছবিকে একটি অ্যাকশন-প্যাকড ইমোশনাল ড্রামা বলা যায়। ছবির বেশকিছু দৃশ্য খারাপ নয়, বেশ ভালোই হয়েছে। বিশেষত দ্বিতীয়ার্ধে। ভেঙ্কির সঙ্গে সলমনের কিছু সংলাপ এবং আবেগঘন দৃশ্যে সল্লুর অভিনয় সত্য়িই ভালো। এই ছবিতে তেলুগু তারকা অভিনেতা ভেঙ্কটেশ দগ্গুবতী চরিত্রটি নজর কাড়ে। ভেঙ্কটেশের নিজ চরিত্রে তাঁর পর্দায় উপস্থিতি বেশ ভালো। ছবিতে সলমন খানের সঙ্গে তাঁর দৃশ্যগুলি ইমোশনাল করে তোলে। পূজা হেগড়েকেও দেখতে খারাপ লাগেনি। ছবির বাকি অভিনেতাদের অভিনয়ও মোটামুটি ভালোই বলা যায়। মেট্রোর মধ্যে লড়াই এবং ভেঙ্কির বাড়িতে হামলাকারী আক্রমণের দৃশ্যগুলি ভালভাবে তুলে ধরা হয়েছে, যেমনটা বাণিজ্যিক ছবিতে হয়ে থাকে আর কি। তবে সবথেকে বেশি মন ছুঁয়েছে ইমোশনাল দৃশ্যগুলি। ছবির দৃশ্যায়নের সঙ্গে মন্দ লাগল না ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর। ‘কিসি কা ভাই কিসি কি জান’-এর গানগুলি বেশ ভালো হয়েছে। ছবিতে ভি মণিকন্দনের সিনেমাটোগ্রাফিও খারাপ লাগল না। তবে ছবির সম্পাদনাও আরও ভালো হতে পারত।সব মিলয়ে সলমনের ‘কিসি কা ভাই কিসি কি জান’ ছবিকে কলকাতা টিভি ১০ এর মধ্যে ৭ দিয়েছে।

তবে শুরুটা কিন্তু খুব একটা ভালো হয়নি। মুক্তির প্রথম দিন মাত্র ১৫ কোটিতেই আটকে যায় সলমনের ‘কিসি কা ভাই কিসি কি জান’। তবে ইদের দিন তাঁর ফ্যানেরা নিরাশ করল না তাঁদের প্রিয় ভাইজানকে। শনিবার ২৫.৭৫ কোটি টাকার ব্যবসা করেছে ভাইজানের ছবি। যার অর্থ ছবির প্রথম ২ দিনে মোট ৪১.৫৬ কোটি টাকা রয়েছে ‘কিসি কা ভাই কিসি কি জান’। প্রথমদিনের তুলনায় ছবির কালেকশন একলাফে ৬২.৮৭% বেড়েছে দ্বিতীয় দিন। দেশের নানান প্রান্তে রবিবারও ছবির একাধিক শো হাউসফুল। প্রাথমিক রিপোর্ট বলছে, তৃতীয় দিনেও ছবির কালেকশন রয়েছে ২৫-২৭ কোটির আশেপাশে। এর ফলে প্রথম তিন দিনে ছবির আয় দাঁড়াল ৬৭-৬৯ কোটি টাকা।