Placeholder canvas
কলকাতা সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |
K:T:V Clock

IPL 2023 | KKR | সৌরভরা জেতায় আশা বাড়ল কেকেআরের, প্লে অফের অঙ্ক ঠিক কী? 

Updated : 18 May, 2023 7:16 PM
AE: Hasibul Molla
VO: Soumi Ghosh
Edit: Monojit Malakar

কলকাতা: মঙ্গলবার লখনউয়ের (LSG) কাছে মুম্বইয়ের (MI) হারে কলকাতা নাইট রাইডার্সের (KKR) প্লে অফে যাওয়ার আশা আরও ক্ষীণ হয়ে গিয়েছিল। বুধবার দিল্লি ক্যাপিটালসের (DC) কাছে পঞ্জাবের (PBKS) হারে ফের আশা তৈরি হল। প্লে অফে পৌঁছতে মুম্বই, পঞ্জাব, রাজস্থান (RR) এবং আরসিবির (RCB) হারের অপেক্ষা করছিল কেকেআর। কালকের হারে অনেকটাই পিছিয়ে গিয়েছে পঞ্জাব। তবে কলকাতাকে শেষ ম্যাচে বড় ব্যবধানে জিততে হবে। না হলে কেউ হারলেও কোনও লাভ হবে না। 

মুম্বইয়ের ১৩ ম্যাচে পয়েন্ট ১৪। শেষ ম্যাচ জিতলে তারা নিশ্চিতভাবেই প্লে অফে। কিন্তু শেষ ম্যাচে হারলে ১৪ পয়েন্টে শেষ করবেন রোহিত শর্মারা (Rohit Sharma)। এদিকে বিরাট কোহলির (Virat Kohli) আরসিবির পয়েন্ট ১২, তবে তাদের দুটো ম্যাচ বাকি। আজ সানরাইজার্স হায়দরাবাদের (SRH) বিরুদ্ধে এবং শেষেরটা গুজরাত টাইটান্সের (GT) বিরুদ্ধে। এই দুই ম্যাচের একটা হারলেই সর্বোচ্চ ১৪ পয়েন্ট পাবে তারা। আর শেষ ম্যাচে এলএসজিকে হারালে ১৪ পয়েন্টে শেষ করবে কলকাতাও। তখন রান রেটের হিসেব হবে। 

হিসেবে রয়েছে রাজস্থানও। তাদেরও এক ম্যাচ বাকি এবং জিতলে তাদেরও ১৪ পয়েন্ট হবে এবং তাদের রান রেট খুবই ভালো। সবথেকে ভালো রান রেট এই মুহূর্তে আরসিবির। তারা একটা ম্যাচ জিতেও প্ল অফে পৌঁছে যেতে পারে। দুটো ম্যাচ জিতলে তো কথাই নেই। 

কাল দিল্লির কাছে পঞ্জাবের হারের পর একটা বিষয় স্পষ্ট। দিল্লি, হায়দরাবাদের মতো প্লে অফ থেকে ছিটকে যাওয়া দলও প্লে অফের ভাগ্য নির্ধারণ করতে পারে। লিগ টেবিলের লাস্ট বয়দের হাতেই নির্ভর করছে ফার্স্ট বয়দের ভাগ্য। পঞ্জাবের পর সিএসকে-র দুই দলের স্বপ্নভঙ্গ করতেই পারেন ডেভিড ওয়ার্নাররা। আবার মুম্বই আর আরসিবির সূর্য ডুবিয়ে দিতে পারে সানরাইজার্স। অর্থাৎ, দিল্লি আর হায়দরাবাদ প্লে অফ থেকে ছিটকে গেলেও টুর্নামেন্টে প্রবলভাবেই আছে। 

এদিকে কলকাতার জন্য আশঙ্কার কথা আবহাওয়া। সপ্তাহের শেষটায় কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে, নাইট শিবির কোনওভাবেই চাইবে না এই ম্যাচ বাতিল হোক কিংবা বিঘ্নিত হোক। কারণ রান রেট বাড়াতে হলে সেদিন বিশাল ব্যবধানে জিততে হবে তাদের। সমীকরণ কঠিন, প্রায় অসম্ভবই বলা চলে।