Placeholder canvas
কলকাতা শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪ |
K:T:V Clock

Abhishek Banerjee | Shantanu Thakur | অভিষেক চলে গেলে গোবর দিয়ে শুদ্ধিকরণ করব ঠাকুরনগর মন্দির, বললেন জাহাজ প্রতিমন্ত্রী শান্তনু ঠাকুর

Updated : 12 Jun, 2023 12:08 AM
AE: Abhijit Roy
VO: Soumi Ghosh
Edit: Silpika Chatterjee

ঠাকুরনগর: অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banerjee) আগমন ঘিরে মতুয়াতীর্থ ঠাকুরনগরে তুঙ্গে রাজনীতির পারদ। এই পরিস্থিতিতে তৃণমূলের (TMC) সাধারণ সম্পাদককে তীব্র কটাক্ষ করলেন  ঠাকুরবাড়ির সদস্য তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও বিজেপি (BJP) সাংসদ শান্তনু ঠাকুর (Shantanu Thakur)। তিনি বলেন, তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঠাকুরবাড়িকে কলঙ্কিত করেছেন। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজনীতি করার জন্য ঠাকুরনগর আসছেন। ঠাকুরনগরে যে কেউ আসতে পারেন। এটা সকলের জায়গা। আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেভাবে ব্যাঙ্গ করেছেন গুরুচাঁদ এবং হরিচাঁদ ঠাকুরকে তাঁর ক্ষমা চাওয়া উচিত। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় চলে গেলে আমরা গোবর দিয়ে শুদ্ধিকরণ করবো ঠাকুরনগর মন্দির। শুধু তাই নয়, পঞ্চায়েত নির্বাচনের (Panchayat Elections 2023) আগে ঠাকুরবাড়িতে অভিষেকের কী কাজ, প্রশ্ন তুললেন। 

জনসংযোগে রবিবার দুপুর ৩টেয় ঠাকুরবাড়িতে আসার কথা অভিষেকের। এর মধ্যে শান্তনুর নেতৃত্বে ‘অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসঙ্ঘ’-এর পক্ষ থেকে রথযাত্রার প্রস্তুতিসভা শুরু হয়েছে। ঠাকুরবাড়িতে এই জোড়া কর্মসূচির জন্য প্রচুর মানুষ জড়ো হয়েছেন। পুলিশি নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে ঠাকুরবাড়ি। কিন্তু রবিবার সকালে ঠাকুরবাড়ির নাটমন্দির থেকে পুলিশকর্মীদের বাইরে বার করে দেন শান্তনু। এরপরই অভিষেককে নিশানা করে বলেন, “কে ও? ও কোন মন্ত্রী? বাংলার মন্ত্রী না কেন্দ্রের? এত সাজগোজ মন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী এলেও হয় না।” তিনি আরও বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় না থাকলে, সাংসদ অভিষেক কে? সূর্যের আলোয় চাঁদ যেমন আলোকিত হয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য ও তা-ই হয়েছে। ব্যক্তিগত ভাবে ও যেমন সাংসদ, আমিও সাংসদ। ভোটের আগে ঠাকুরবাড়িতে এই মুহূর্তে কী আছে? ওর লোকসভায় এসব হোক।”

এক মতুয়া ভক্ত বলেন, এটা আমাদের বিক্ষোভ সমাবেশ নয়। আমাদের এই সমাবেশ পূর্বপরকল্পিত। আগামী রাস উপলক্ষে আমাদের এই অনুষ্ঠান। এটি মতুয়া মহাসঙ্ঘের পূর্ব নির্ধারিত অনুষ্ঠান। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় অন্য দিনে আসতে পারতেন। কেন আজকে আসছে? মতুয়াদের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ জানানোর জন্য আসছে? তাঁর পিসি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মতুয়াদের আরাধ্য দেবতা গুরুচাঁদ এবং হরিচাঁদ ঠাকুরকে অপমান করেছেন, ক্ষমা না চেয়ে আবার এসেছেন এখানে মাতব্বরি ফলাতে।